1. admin@dainikbanglarkotha.com : banglarkotha1987 :
সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
আড়াইহাজারে গাজাসহ ২ জন গ্রেফতার সোনারগাঁয়ে একটি গ্রামে অন্য দেশের সাথে মিলে রেখে ঈদ-উল-ফিতর উদযাপন সোনারগাঁও উপজেলা শাখা আরজেএফে এর উদ্যোগে দোয়া ও ইফতার অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ে বিজয় ধ্বনি যুব সংঘের উদ্যোগে অসহায় দরিদ্র পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ সোনারগাঁয়ে মেঘনা টোল প্লাজায় ছয়টি ইটিসি বুথ উদ্বোধন সোনারগাঁয়ে মোগরাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি ব্যাচ-২০০৩ এর উদ্যোগে দুটি মাদরাসা ও এতিমখানায় দোয়া ও ইফতার সোনারগাঁয়ে ”দৈনিক সমকালীন কাগজ” এবং ”জাগো সোনারগাঁও টুয়েন্টি ফোর ডটকম” এর সৌজন্যে দোয়া ও ইফতার আসন্ন ঈদে মুক্তি পাচ্ছে সাংবাদিক সূর্য আহমেদ মিঠুন পরিচালিত মিউজিক্যাল ফিল্ম আত্মহারা সোনারগাঁয়ে মোগরাপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল সোনারগাঁয়ের আলমদীতে মসজিদ ঘেঁষে জোরপূর্বক কারখানা নির্মানের অভিযোগ

স্বামীকে হত্যার অপরাধে দ্বিতীয় স্ত্রীকে আদালতে প্রেরণ

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ২৭ বার পঠিত

পারিবারিক কলহের জের ধরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুরে অন্ডকোষে আঘাত করে স্ত্রীকে কৃর্তক স্বামীকে হত্যার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে নিহতের বড় বোন রাজিয়া বেগম বাদি হয়ে দ্বিতীয় স্ত্রী রহিমা বেগমকে আসামী করে এ মামলা দায়ের করেন। শনিবার সকালে দ্বিতীয় স্ত্রীকে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এদিকে নিহত শাহজাহানের লাশ নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ময়না তদন্ত শেষে তার পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। বিকেলে  নিহতের লাশ গ্রহন করেন তার বোন রাজিয়া বেগম। লাশ গ্রহনের পর চাঁদপুরের শাহরস্তি এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাকে দাফন করা হবে।
নিহত শাহজাহান চাঁদপুরের শাহরাস্থি এলাকার মৃত শহীদ ভান্ডারীর ছেলে। তিনি বর্তমানে কাচঁপুর সোনাপুর এলাকার আক্কাস আলীর ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করতেন। তিনি কাঁচপুর লাভলি সিনেমা হলের সামনে একটি স্বর্ণের দোকানের কারিগর হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
জানা যায়, নিহত শাহজাহান দ্বিতীয় বিয়ে করে কাচঁপুর এলাকায় রহিমা বেগমকে নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। কাঁচপুরের বাসায় শাহজাহানের প্রথম স্ত্রী রোজিনা বেগম প্রায় যাতায়াত করতেন। গত শুক্রবার দুপুরে প্রথম স্ত্রী রোজিনা বেগম বাসায় এসে শাহজাহানের সঙ্গে দুপুরের খাবার খেয়ে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। ছোট স্ত্রী রহিমা বেগম এ খবর পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে বাসায় এসে তার স্বামীর সঙ্গে কথাকাটাকাটি  এক পর্যায়ে হাতাহাতি শুরু করে। বড় স্ত্রী রোজিনা বেগম তাদের ঝগড়া থামাতে না পেরে বাড়ির মালিককে ডেকে আনার জন্য বাহিরে যান। পরে ঘরে এসে শাহজাহানের লাশ পড়ে থাকতে দেখে। বড় স্ত্রী রোজিনার দাবি তার স্বামীকে দ্বিতীয় স্ত্রী রহিমা বেগম অন্ডকোষে আঘাত করে হত্যা করেছে। পরে তাকে কাঁচপুরের একটি বেসরকারী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। ওই সময় ঘটনাস্থল থেকে দুই স্ত্রীকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে যায়। প্রথম স্ত্রী রোজিনা বেগম এ হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত না থাকায় তাকে রাতেই জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেওয়া হয়। এ হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে দ্বিতীয় স্ত্রী রহিমা বেগমকে নারায়ণগঞ্জ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।
অপর দিকে নিহত শাহজাহানের পাশ্ববর্তী কনফেকশনারী দোকানের কর্মচারী আলমগীর হোসেন জানান, শাহজাহান শান্ত প্রকৃতির ছিলেন। তিনি কারো সঙ্গে ঝগড়া বিবাদে ছিলেন না। দীর্ঘ ৪ বছর ধরে তার দোকানের পার্শ্ববর্তী দোকানের কর্মচারী হিসেবে কর্মরত রয়েছি। তাকে কখনো খারাপ বলে মনে হয়নি।
সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক(তদন্ত) মোহাম্মদ আহসান উল্লাহ বলেন, স্বর্ণের কারিগর হত্যাকান্ডের ঘটনায় মামলা গ্রহন করা হয়েছে। এ মামলায় একজন আসামী। তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে শনিবার বিকেলে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ দৈনিক বাংলার কথা
Theme Customized By Shakil IT Park